,


আটক

প্রতিমন্ত্রী পলকের সভাস্থল থেকে হাতবোমা উদ্ধারের ঘটনায় বিএনপির ৫ নেতাকর্মী আটক

উপজেলা ও পৌর বিএনপির নিন্দা

সিংড়া (নাটোর) সংবাদদাতাঃ নাটোরের সিংড়ায় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপির সভাস্থল থেকে ২টি হাতবোমা উদ্ধারের ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলায় বিএনপির ৫ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে অভিযান চালিয়ে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলেন, উপজেলা বিএনপির সদস্য ও ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক জয়নাল আবেদীন, উপজেলা যুবদলের কোষাধ্যক্ষ আবু আকরাম, শেরকোল ইউনিয়ন যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রতন আলী, বিএনপি কর্মী আঃ সালাম ও নাজমুল।

উল্লেখ্য, কলম ডিগ্রি কলেজ মাঠে খেলাকে কেন্দ্র করে গত শনিবার বিকেলে উদ্বোধনী খেলা চলাকালীন চামারীর ইউপি সদস্য আরিফ ও আলালের নেতৃত্বে কলম ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য শফিকুল ইসলামকে ডেকে নিয়ে নৌকাযোগে ওই মেম্বারের বাড়িতে তুলে নিয়ে মারপিট করা হয়। তারা শফিককে বেদম মারপিট করে তার পা ও দুটি দাঁত ভেঙ্গে দেয়। খবর পেয়ে পরে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে উপজেলার চামারী ইউনিয়নের সামারকোল গ্রামের মহাতাবের পুত্র ও আরিফ মেম্বারের সহযোগী সজিবকে (২০) আটক করে পুলিশ। পরে রাতে তাঁর জবানবন্দী নিয়ে অভিযান চালিয়ে কলম ডিগ্রি কলেজ মাঠের পাশ থেকে মাটিতে পোতা ২টি হাতবোমা উদ্ধার করে।

প্রতিমন্ত্রী পলকের সফরসূচি অনুযায়ী সোমবার সকালে কলম ডিগ্রি কলেজে চারতলা বিশিষ্ট আইসিটি ভবন উদ্বোধনের প্রোগ্রাম দেয়া ছিল।

পরে সিংড়া থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) আনহার হোসেন বাদী হয়ে বিশৃংখলা ও নাশকতার অভিযোগ এনে ইউপি সদস্য আরিফকে প্রধান আসামী করে অজ্ঞাত ২০/২৫ জনের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক উপাদানবলী আইন (সং/০২) এর ৪/৫/৬ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন।

সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপির সভাস্থল থেকে ২টি হাতবোমা উদ্ধারের ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলায় বিএনপির ৫ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এদিকে নেতাকর্মীদের গ্রেফতারে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন উপজেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাডঃ মজিবর রহমান মন্টু, পৌর সভাপতি দাউদার মাহমুদ, উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম হোসেন ও উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান।

উপজেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাডঃ মজিবর রহমান মন্টু ও পৌর সভাপতি দাউদার মাহমুদ জানান, কলম কলেজে হাতবোমা উদ্ধারের ঘটনায় বিএনপির কোনো নেতাকর্মী জড়িত না। বিএনপি যাতে পরবর্তীতে কোনো আন্দোলন করতে না পারে সেজন্য ষড়যন্ত্রভাবে তাদের আটক করা হয়েছে। উপজেলা ও পৌর বিএনপির পক্ষ থেকে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।

Leave a Reply


এই বিভাগের আরো

সর্বশেষ

%d bloggers like this: