,


লাশ উদ্ধার

ভোলায় মোয়াজ্জেমের গলায় ফাঁস দেওয়া লাশ উদ্ধার

ভোলা প্রতিনিধি

ভোলা সদর উপজেলায় নুরে আলম (২৮) নামে এক ব্যাক্তির গলায় ফাসঁ দেওয়া লাশ উদ্ধার করেছ ভোলা সদর থানা পুলিশ।

রবিবার (৩ফেব্রুয়ারী) দুপুর ২টার দিকে উপজেলার ধনিয়া ইউনিয়নের বালিয়াকান্দি জামে মসজিদের পাশে মোয়াজ্জেমের রুম থেকে এ লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত নুরে আলম ঐ মসজিদের মোয়াজ্জেম হিসাবে নিয়োজিত ছিল। নুরে আলম বাপ্তা ইউনিয়নের বাসিন্ধা মোসলেউদ্দিন আহমেদের ছেলে।

স্থানীয়সুত্রে জানায়, নুরে আলম দুপুরের আযান দেয়। এরপরে মসুল্লিরা জামায়াতে নামাজ পড়তে এসে মোয়াজ্জেমকে মসজিদের ভিতরে দেখতে না পেয়ে ডাকাডাকি শুরু করেন, ডাকাডাকির পর তার কোন সারা শব্দ না পেয়ে তার ঘড়ে গিয়ে দেখেন নুরেআলম জানালার গ্রিলের সাথে গলায় ফাঁশ দিয়ে ঝুলে আছেন।

পরে মুসল্লিরা ভোলা সদর মডেল থানার পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

নিহতের পরিবারসূত্রে জানা যায়, নুরে আলম গত ২মাস আগে বিবাহ করে সুখে শান্তিতে ঘর সংসার করছিলেন। তার স্ত্রীর কিংবা পরিবারের কারো সাথে কোন ঝগড়া বিবাদ ছিলোনা। এলাকা কারো সাথেও কখনো ঝগড়া বিবাদ হয়নি, তাহলে কেন হঠাৎ করে আত্নহত্যা করবে সে। এমন মৃত্যু মেনে নিতে পারছে না তারা।

নিহতের পরিবারের দাবী এটা আত্নহত্যা নয়, কেউ নুরে আলমকে মেরে গলাশ রশি দিয়ে ঝুলিয়ে রেখে গেছে।

ভোলা সদর মডেল থানারউপ-পরিদর্শক (ওসি) ছগির মিয়া জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে, ময়না তদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মর্গের রিপোর্ট না আসা পযর্ন্ত বলা যাবেনা এটা আত্নহত্যা না মেরে ফেলা হয়েছে।

Leave a Reply


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: