,


সড়ক দূর্ঘটনায় পুলিশ কর্মকর্তা ও তার পরিবারের ঈদের খুশি ম্লান
সড়ক দূর্ঘটনায় পুলিশ কর্মকর্তা ও তার পরিবারের ঈদের খুশি ম্লান

সড়ক দূর্ঘটনায় পুলিশ কর্মকর্তা ও তার পরিবারের ঈদের খুশি ম্লান

নাটোর প্রতিনিধিঃ  ঈদের ছুটিতে বাড়ি ফেরার সময় হাসিখুশিতে মেতে ছিলেন শিশু মারিয়া তাসনিম মৃধা সহ ঢাকার কদমতলী থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুল জলিলের পুরো পরিবার। স্ব-পরিবারে ছুটিতে ফিরছিলেন পরিবার পরিজনের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে। কিন্তু নিমিষেই সড়ক দূর্ঘটনায় ম্লান হয়ে গেল পুরো পরিবারের ঈদ আনন্দ। রবিবার সকাল ১১ টার দিকে নাটোরে বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়কের মহিষভাঙ্গা তাদের বহনকারী মাইক্রোবাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা খায়। ঘটনাস্থলেই নিহত হয় শিশু মারিয়া। এসময় আহত হয় উপ-পরিদর্শক আব্দুল জলিল সহ ৬ জন।

নাটোরের বনপাড়া হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন ও স্থানীয়রা জানান, ঢাকার কদমতলী থানার উপ-পরিদর্শক আব্দুল জলিল স্ব-পরিবারে মাইক্রোবাস যোগে ঈদের ছুটিতে নাটোরের সিংড়ার বিলভরট গ্রামে নিজ বাড়িতে যাচ্ছিলেন। পথে নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়কের মহিষভাঙ্গা এলাকার একটি পেট্রোল পাম্পের সামনে এসে অতিরিক্ত বৃষ্টির কারনে গাড়ীটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়কের পাশে গাছের সাথে ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলেই আব্দুল জলিলের শিশু কন্যা মারিয়া নিহত হয় এবং গাড়ীতে থাকা আরো ৬জন আহত হয়। আহতরা হলো আব্দুল জলিল, তার স্ত্রী রীনা বেগম, ছেলে তাহসিম আহমেদ, মেয়ে জান্নাতুল মাওয়া, তার শ্বাশুড়ি ও মাইক্রো চালক।

 

খবর পেয়ে বড়াইগ্রাম থানা পুলিশ ও বনপাড়া হাইওয়ে পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহত শিশুর মরদেহটি উদ্ধার করে এবং আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় ক্লিনিকে ভর্তি করে। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে উপ-পরিদর্শক আব্দুল জলিল ও জান্নাতুল মাওয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। প্রাথমিকভাবে, পুলিশের ধারণা মাইক্রোবাসটি বৃষ্টির মধ্যে দ্রুত গতিতে চলতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সাথে ধাক্কা খায়। খবর পেয়ে পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

Leave a Reply


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: