,


কুড়িগ্রামে মাছ ব্যবসায়ীদের পুর্ণবাসন না করে ভবন ভাঙ্গার প্রতিবাদে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট
কুড়িগ্রামে মাছ ব্যবসায়ীদের পুর্ণবাসন না করে ভবন ভাঙ্গার প্রতিবাদে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট

কুড়িগ্রামে মাছ ব্যবসায়ীদের পুর্ণবাসন না করে ভবন ভাঙ্গার প্রতিবাদে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ মাছ ব্যবসায়ীদের পুর্ণবাসন না করে কুড়িগ্রামের জিয়া বাজারের ভবন ভাঙ্গার প্রতিবাদে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটে নেমেছে ব্যবসায়ীরা।
সোমবার সকাল থেকে জিয়া বাজারের ব্যবসায়ীরা মাছ বিক্রি বন্ধ করে দিয়ে কুড়িগ্রাম-ভুরুঙ্গামারী মহাসড়কে ঘন্টাব্যাপী অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। এসময় তারা জানায়, নিয়মনীতি মেনে পৌর কর্তৃপক্ষকে টাকা জমা দিলেও পুর্ণবাসন না করে ঢালাওভাবে ভবনটি ভাঙ্গার কাজ শুরু করে পৌর কর্তৃপক্ষ। এ অবস্থায় আমরা অনির্দিষ্টকালের জন্য মাছ বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছি।
কুড়িগ্রাম জিয়া বাজার মাছ ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি নারায়ন চন্দ্র দাস জানান, প্রথমত পৌরসভার মেয়র আমাদের মাছ ব্যবসায়ীদের নিকট টাকা নিয়ে পজিশন বরাদ্দের কাগজ দিয়ে তারপর ভবন ভাঙ্গার কথা ছিল। কিন্তু তিনি টাকা নিয়েছেন সেডের পজিশনের কাগজ না দিয়েই ভবন ভাঙ্গার কাজ শুরু করেছেন। দ্বিতীয়ত এখানকার ব্যবসায়ীদের আলাদা কোন জায়গায় বসার ব্যবসস্থা না করে দিয়েই ভবন ভাঙ্গছেন। এতে করে ভবন ভেঙ্গে ফেলে নতুন সেড তৈরি না করা পর্যন্ত আমাদের ব্যবসা গুটিয়ে বসে থাকতে হবে। এজন্যই আমরা জিয়া বাজারে মাছ বিক্রি বন্ধে অনির্দিষ্ট কালের ধর্মঘট পালন করছি। বিষয়টি সমাধান না হওয়া পর্যন্ত এ ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে। আমরা সংখ্যালঘু বলেই মেয়র আমাদের সাথে এমন আচরন করছে।
এব্যাপারে কুড়িগ্রাম পৌরসভার প্যানেল মেয়র মাসুদুর রহমান মাসুদ জানান, ঐ ভবনে যারা ব্যবসা করে তাদেরকে আপাতত মাছ বিক্রির কোন ব্যবস্থা না করে ভবনটি ভাঙ্গা ঠিক হবে না। বিষয়টি আমরা পৌর মেয়রকেও অবগত করেছি।
কুড়িগ্রাম পৌরসভার মেয়র আব্দুল জলিল জানান, জিয়া বাজারের ঐ ভবনটি মেয়াদ উত্তীর্ন হওয়া ভেঙ্গে নতুন সেড তৈরি করা হবে। মাছ ব্যবসায়ীদের সমস্যা সমাধানের জন্য আপাতত টিনের চালা করে তাদের সাময়িক বসার ব্যবস্থা করে দেয়া হবে। সেড নির্মাণের পর বিধি মোতাবেক ব্যবসায়ীদের দোকান বরাদ্দ দেয়া হবে।

Leave a Reply


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: