,


গর্ভের সন্তান মেয়ে হলেই শুরু হয় নির্যাতন
গর্ভের সন্তান মেয়ে হলেই শুরু হয় নির্যাতন

গর্ভের সন্তান মেয়ে হলেই শুরু হয় নির্যাতন

গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গর্ভের ভ্রুন (সন্তান) মেয়ে হলেই শুরু হয় নির্যাতন। কিন্তু সন্তান ছেলে না মেয়ে হবে এর কারণ বাবা। এই বিষয়টি মানুষ বুঝেও না বোঝার ভান করে সেই গর্ভবতী মাকে কষ্ট দেয়। ২০ বছরের আগে কোন নারী সন্তান নিতে না চাইলেও তাদেরকে বাধ্য করা হয় সন্তান নিতে। প্রকৃতপক্ষে ২০ বছরের আগে সন্তান নেওয়া ঠিকনা। এতে করে মা ও সন্তানের মৃত্যু ঝুঁকি থাকে।

বুধবার দুপুরে গাইবান্ধা সদর উপজেলার বোয়ালী ইউনিয়নের রাধাকৃষ্ণপুর গ্রামে এসকেএস ইন মিলনায়তনে জেন্ডারভিত্তিক সহিংসতা প্রতিরোধে সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানসমূহের সাথে মতবিনিময় কর্মশালার আলোচনায় এসব বিষয় উঠে আসে। এসকেএস ফাউ-েশনের ইমেজ প্লাস প্রকল্পের উদ্যোগে ও দাতা সংস্থা টিডিএইচ নেদারল্যান্ডস এর সহযোগিতায় এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালায় বক্তাদের কথায় আরও উঠে আসে, সন্তান পেটে এলে গর্ভবতী মায়ের সঠিক যত্ন নেওয়া হয়না। কিন্তু এই সময়টাতে একজন গর্ভবতী মাকে অনেক যত্ন করতে হয়। কৌশলে এখনো বাল্যবিয়ের ঘটনা ঘটছে। এ ছাড়া নারী ও শিশুর সমস্যা সংক্রান্ত বিষয়ে বিনামূল্যে ১০৯ নম্বরে কল দিতে বলা হয় মতবিনিময় সভায়। কর্মশালায় বিবাহিত কিশোরীদের যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য, পারিবারিক নির্যাতনমুক্ত, শিক্ষা নিশ্চিতকরণসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়।

কর্মশালায় এসকেএস ফাউডেশনের কো-অর্ডিনেটর সুরুজ আলী সরকারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা লিগ্যাল এইড অফিসার ও সিনিয়র সহকারী জজ গাজী জামসেদুল হক। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. এমদাদুল হক প্রমানিক ও জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নার্গিস জাহান।

কর্মশালায় আরও বক্তব্য রাখেন গাইবান্ধা সরকারি কলেজের উপাধ্যক্ষ খলিলুর রহমান, পলাশবাড়ী উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মিজানুর রহমান মল্লিক, পলাশবাড়ীর হরিণাবাড়ী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ কামাল উদ্দিন, গাইবান্ধা সদর থানার সাব-ইন্সপেক্টর (এসআই) ইমরান খান, সমাজসেবা অধিদপ্তরের প্রবেশন অফিসার নাসির উদ্দিন শাহ, ফ্রেন্ডশীপের জেলা সমন্বয়কারী আব্দুস সালাম, পলাশবাড়ী সিভিল সোসাইটি ফোরামের সভাপতি মাহমুদা চৌধুরী, রেডিও সারাবেলা ৯৮.৮ এফএম’র নিউজ প্রোডিউসার ফরহাদ হোসেন, সাংবাদিক আবুল কালাম আজাদ, এ বি এম ছাত্তার, আফরোজা লুনা, রিকতু প্রসাদ, ইমেজ প্লাস প্রকল্পের জেলা সমন্বয়কারী মোদাচ্ছেরুজ্জামান মিলু, ম্যানেজার কানিজ হুসনা আফরোজা পলি, বিবাহিত কিশোরী রোকসানা বেগম, তানিয়া বেগম ও খাদিজা বেগম প্রমুখ। 

এই মতবিনিময় কর্মশালায় বিচার বিভাগ, পুলিশ প্রশাসন, শিক্ষক, সমাজসেবা অধিদপ্তর, মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর, সিভিল সোসাইটি ফোরাম, সাংবাদিক, অল্প বয়সের বিবাহিত কিশোরী, তাদের শাশুড়ী, অবিবাহিত কিশোরীসহ এনজিও প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: