,


শেষটা রাঙাতে পারবেন ‘সাদা–কালো’ তামিম?
শেষটা রাঙাতে পারবেন ‘সাদা–কালো’ তামিম?

শেষটা রাঙাতে পারবেন ‘সাদা–কালো’ তামিম?

ডেস্ক রিপোর্টারঃ বিশ্বকাপে ভালো শুরু পেয়েও বাজেভাবে আউট হচ্ছেন তামিম ইকবাল। লর্ডসে আজ পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের শেষ ম্যাচটা কি রাঙাতে পারবেন এ ওপেনার? পরিসংখ্যান কিন্তু বলছে, ওয়ানডেতে প্রতিপক্ষ হিসেবে পাকিস্তানকে পেলেই জ্বলে ওঠার অভ্যাস আছে তামিমের বিশ্বকাপে তামিম ইকবাল খুব খারাপ করছেন, বলা যাবে না। প্রতিটি ম্যাচেই ইনিংসের শুরুটা করছেন। কিন্তু আউট হয়ে আসছেন বাজেভাবে। এ নিয়ে তামিমের আক্ষেপই সবচেয়ে বেশি। বাংলাদেশ দল সেমিফাইনালের দৌড়ে থাকতে নিজের ওপর একটু বেশিই চাপ নিয়ে নেওয়ার কথা বলেছিলেন তিনি। তা, দল তো এখন আর সেমির দৌড়ে নেই। তাই পাকিস্তানের বিপক্ষে আজ নিজেদের শেষ ম্যাচে জয় ছাড়া আর কোনো প্রত্যাশা নেই বাংলাদেশের। চাপমুক্ত হয়েই মাঠে নামবে দল। তাই অন্তত শেষ ম্যাচে তামিমের ব্যাটে বড় রান দেখার আশা করাই যায়? আর প্রতিপক্ষ যেহেতু পাকিস্তান, সাদা–কালো ফর্মে থাকা তামিমের রঙিন হয়ে ওঠার সম্ভাবনাটা মোটেও কম নয়।

ওয়ানডেতে প্রতিপক্ষ হিসেবে পাকিস্তানকে পেলেই চওড়া হয়ে উঠেছে তামিমের ব্যাট। অন্তত বাংলাদেশের যে কারও চেয়ে বেশি। এ সংস্করণে পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের মধ্যে তামিমের রানসংখ্যাই যে সবচেয়ে বেশি। ২০০৮ থেকে ২০১৫—এ সময়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৬ ম্যাচে ৪৫.০৬ গড়ে ৮৬.৪৪ স্ট্রাইকরেটে ৬৭৬ রান করেছেন তামিম। সেঞ্চুরি দুটি, ফিফটি পাঁচটি।

চার বছরের বেশি সময় আগে ওয়ানডেতে সবশেষ পাকিস্তানের মুখোমুখি হয়েছিলেন এ ওপেনার। মধ্যের এ সময়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে একটি ওয়ানডে খেলেছে বাংলাদেশ। সেটি গত বছর এশিয়া কাপে। চোটের কারণে তামিম ম্যাচটা খেলতে পারেননি। সে যা–ই হোক, ২০১৫ সালের এপ্রিলে পাকিস্তানকে ওয়ানডে সিরিজে ধবলধোলাই করেছিল বাংলাদেশ। সেবার সিরিজের শেষ ম্যাচটা পাকিস্তানের বিপক্ষে এ পর্যন্ত তামিমের শেষ ওয়ানডে। ওই ম্যাচে ৬৪ রান করেছিলেন তামিম।

বাংলাদেশ-পাকিস্তান ওয়ানডে ইতিহাসে সর্বোচ্চ রান অবশ্য তামিমের নয়। ১৮ ম্যাচে ৮৯.৩০ গড়ে সর্বোচ্চ ৮৯৩ রান করেছেন পাকিস্তানের সাবেক ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ ইউসুফ। তবে একটি জায়গায় বাংলাদেশের বাকি ব্যাটসম্যানদের চেয়ে তামিম অনেক এগিয়ে। পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডেতে বাংলাদেশের আর কোনো ব্যাটসম্যানই ন্যূনতম ৫০০ রানও করতে পারেননি। ১৫ ম্যাচে ৪৮৯ রান নিয়ে এ তালিকার সাতে সাকিব আল হাসান। পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ ২টি সেঞ্চুরিও তামিমের।

এবার বিশ্বকাপে তামিমের স্ট্রাইকরেট নিয়ে বেশ ভালোই সমালোচনা হচ্ছে। উইকেটে থেকে ‘সেট’ হওয়ার পরও বলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রান তুলতে পারছেন না এ ওপেনার। পরিসংখ্যানও তা–ই বলছে। মোস্তাফিজুর রহমান ছাড়া দলের বাকিদের মধ্যে তামিমের স্ট্রাইকরেটই (৭৩.৯৪) সবার নিচে। এবার বিশ্বকাপে তামিম কোনো ছক্কাও মারতে পারেননি। ভাবা যায়!

তবে পাকিস্তান ম্যাচটা তামিমকে এখান থেকে টেনে তুলতে পারে। মানে, পাকিস্তানের বিপক্ষে চার-ছক্কা মারায় তামিম বেশ ভালোই পটু। দলটির বিপক্ষে বাংলাদেশের হয়ে যুগ্মভাবে সর্বোচ্চ ৬টি ছক্কা মেরেছেন তামিম (সঙ্গে সৌম্য)। চার মেরেছেন ৮৮টি—যা বাংলাদেশ-পাকিস্তান ওয়ানডেতেই ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ।

Leave a Reply


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: