,


পাওনা টাকা চাওয়ায় বন্ধুকে কুপিয়ে জখম
পাওনা টাকা চাওয়ায় বন্ধুকে কুপিয়ে জখম

পাওনা টাকা চাওয়ায় বন্ধুকে কুপিয়ে জখম

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ ঠাকুরগাঁওয়ে পাওনা টাকা চাওয়ার কারণে বন্ধু ও তার পরিবারের লোকজনকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রবিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার চিলারং ইউনিয়নের ভেলাজান বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

আহত ইসমাইল হোসেন (৩৫), তার ছোট ভাই মিন্টু (৩২) চিলারং ইউনিয়নের আজিজুর রহমানের ছেলে ও আজিজুর রহমানের ছোট ভাই মকবুল হোসেন (৫০) ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইসমাইল হোসেন বলেন, এক বছর আগে বন্ধু রাসেলকে ১৩ হাজার টাকা ধার দিয়েছিলেন তিনি। গত বুধবার পাওনা টাকার জন্য বন্ধু রাসেলকে মোবাইল করলে ফোন ধরে তার আরেক বন্ধু তইমুর রহমান। এসময় সে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে মোবাইলেই কথা কাটাকাটি হয়।

তিনি বলেন, রবিবার বিকেলে ভেলাজান বাজারে আসলে বন্ধু রাসেলের নেতৃত্বে তইমুরসহ আরও কয়েকজন ধারালো অস্ত্র দিয়ে আমাকে ও আমার ছোট মিন্টু এবং ছোট চাচা মকবুল হোসেনকে কুপিয়ে জখম করে তারা। এতে তারা গুরুতর জখম হয়। এরপর স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে বন্ধু রাসেল, তইমুর সহ অন্যরা পালিয়ে যায়।

পরে স্থানীয় লোকজন রক্তাক্ত অবস্থায় আহত ইসমাইল হোসেন, ছোট ভাই মন্টু ও ছোট চাচা মকবুল হোসেনকে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

হাসপাতালের চিকিৎসক রুমা পারভিন বলেন, আহত তিনজনের শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ধারালো কিছু দিয়ে জখম করা হয়েছে। তাদেরকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি আশিকুর রহমান বলেন, খবর পাওয়ার পর ঘটনাস্থল ও হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। ঘটনা সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত কেউ অভিযোগ দেয়নি; অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ বিষয়ে বন্ধু রাসেলের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। তবে হাসপাতালে রাসেলের বন্ধু তইমুরও ভর্তি হয়েছে। তিনি বলেন, আমরা তাদেরকে মারপিট করিনি; তারাই আমাদেরকে মারপিট করেছে।

Leave a Reply


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: