,


গাছের পরিচর্যায়
গাছের পরিচর্যায়

গাছের পরিচর্যায়

ডেস্ক রিপোর্টারঃ ইট-পাথরের এই শহরে যেদিকেই চোখ যায়, উঁচু দালান, গাড়ি, নানা চোখ ধাঁধানো স্থাপনা। সবুজ, সতেজ গাছগুলো ঠাঁই পাচ্ছে ছাদের ওপরেই। চলছে বর্ষাকাল, গাছ লাগানোর মৌসুম। টবে, ড্রামে কিংবা কিছু জায়গায় মাটি ফেলেই বাগান করা যেতে পারে। লাগানো যায় ফুল, ফল কিংবা পছন্দের সবজির গাছ। গাছের পরিচর্যায় দরকার কিছু অনুষঙ্গ। আগাছা সরানো, মাটি নিড়ানি দেওয়ার জন্য পাওয়া যায় আলাদা অনুষঙ্গ।

ছাদবাগান নিয়ে কাজ করা প্রতিষ্ঠান গ্রিন সেভার্সের স্বত্বাধিকারী আহসান রনি জানালেন, ছাদবাগান করতে চাইলে ছাদে পানিনিষ্কাশনের ব্যবস্থা জোরদার করা জরুরি। এ ছাড়া অনেকে ট্যাংকিতে জলজ উদ্ভিদ ও মাছের চাষ একসঙ্গে করতে চান, সে ক্ষেত্রে বিশেষভাবে ছাদটি প্রস্তুত করে নেওয়া প্রয়োজন। না হলে দ্রুতই ছাদ ড্যামেজ হওয়ার আশঙ্কা থাকে। ছাদবাগানের জন্য খুব বেশি বড় ও ঝোপালো গাছ বেছে না নিয়ে হাইব্রিড গাছ বেছে নেওয়া বাঞ্ছনীয়।


টব

স্থায়ীভাবে বাগান করতে চাইলে সিমেন্টের টব বেছে নেওয়া ভালো। চাইলে প্রয়োজনমতো এ ধরনের টব তৈরি করে নিতে পারেন। এ ছাড়া পোড়ামাটি কিংবা প্লাস্টিকের টব ব্যবহার করা যেতে পারে। এমন ধরনের টবে একটু রং করিয়ে নিলে ছাদবাগানটি হয়ে উঠবে নজরকাড়া। গ্রিলের সঙ্গে ঝুলিয়ে দেওয়ার জন্য বিভিন্ন ধরনের টব পাওয়া যায় নার্সারিতে। সেখান থেকে বিভিন্ন আকার ও পছন্দমতো নকশার টব এনে সাজালেও জায়গা বাঁচিয়ে বেশি গাছ লাগানো যাবে। এ ছাড়া বড় আকারের স্টিল বা প্লাস্টিকের ড্রাম মাঝ বরাবর কেটে টব হিসেবে ব্যবহার করা যায়। সাধারণত একটু বড় আকৃতির গাছ কিংবা ফলের গাছের জন্য এ ধরনের ড্রাম সুবিধাজনক। এতে গাছ দ্রুত বেড়ে উঠতে পারে। নার্সারিতে পাওয়া যাবে নানা আকৃতির টব। চাইলে ফেলনা প্লাস্টিকের বোতল, ভাঙা গ্লাস বা মগ, গামলা, বালতি, বাতিল করে দেওয়া বাথরুমের কমোড বা বেসিনকেও কাজে লাগানো যায় টবের বিকল্প হিসেবে।

নিড়ানি

টব বা ড্রামের মাটি আলগা করতে নিড়ানি ব্যবহার করা উচিত। ছাদবাগানের জন্য এটি খুব গুরুত্বপূর্ণ উপকরণ। নার্সারিতে কিংবা যেকোনো কামারের দোকানে এটি কিনতে পাওয়া যাবে। দাম ৮০-১০০ টাকা।

সেকেচার

গাছের ডালপালা কাটার জন্য প্রয়োজন হবে সেকেচার। এর মাধ্যমে মসৃণভাবে অপ্রয়োজনীয় ডাল কেটে ফেলতে পারবেন। নার্সারি ও হার্ডওয়্যারের দোকানে এটি পাওয়া যাবে । মানভেদে দাম পড়বে ২৫০-৫০০ টাকা।

পানির ঝাঁজরি

গাছে পানি দেওয়ার জন্য টিন ও প্লাস্টিকের তৈরি ঝাঁজরির ব্যবহার জনপ্রিয়। ঝাঁজরিতে পানি দিলে গাছের গোড়ায় আঘাত লাগে না, সেই সঙ্গে ওপর থেকে পানি পড়ায় গাছের পাতা, ফুল বা ফলে জমা ধুলা–ময়লা ধুয়ে পরিষ্কার হয়ে যায়। নার্সারি, হার্ডওয়্যারের দোকান ছাড়াও পুরান ঢাকার সিদ্দিকবাজার ও কারওয়ান বাজারে পাওয়া যাবে ঝাঁজরি। দাম ৩০০-৬০০ টাকা।

স্প্রেয়ার

ছাদে বা বারান্দাবাগানের পোকামাকড় দমন করতে কীটনাশক স্প্রে করতে চাইলে হাত স্প্রেয়ারের বিকল্প নেই। নার্সারি ও পুরান ঢাকার সিদ্দিকবাজার বীজ মার্কেটে পাওয়া যাবে এই অতি প্রয়োজনীয় উপকরণ। দাম ২৫০-৪০০ টাকা।

ওয়াটার পাইপ

অল্প সময়ে অনেক গাছে পানি দেওয়ার জন্য ওয়াটার পাইপ ভীষণ কাজের। কলের মুখের মাপের সঙ্গে মিলিয়ে পাইপ নিলে অযাচিত পানির অপচয় রোধ করা সম্ভব। আধা ইঞ্চি থেকে এক ইঞ্চি ব্যাসের প্লাস্টিকের পাইপগুলোর দাম ফুটপ্রতি ১০-১২ টাকা। হার্ডওয়্যারের দোকানগুলোতেই পাওয়া যাবে পাইপ।

কোদাল

শক্ত মাটিকে খুঁড়ে আলগা করতে ও বড় গাছ লাগাতে হলে কোদাল ব্যবহার করতে হয়। দাম গুনতে হবে ৩০০ থেকে ৫০০ টাকার মধ্যে। কারওয়ান বাজার, পুরান ঢাকার সিদ্দিকবাজার কিংবা যেকোনো কামারের দোকানে পাওয়া যাবে কোদাল।

শাবল

ড্রাম বা টবের মাটি খোঁচানোর কাজে ব্যবহার করা হয়। দাম ৩০০ থেকে ৪০০ টাকার মধ্যে। কারওয়ান বাজার কিংবা যেকোনো কামারের দোকানেই পাওয়া যাবে।

বেলচা

মাটি তুলে টবে বা ড্রামে সহজে তোলার কাজে ব্যবহার করা হয়। দাম নিতে পারে ৪০০ থেকে ৫০০ টাকার মধ্যে। পাওয়া যাবে যেকোনো হার্ডওয়্যারের দোকানে।

পিএইচ ও ময়েশ্চার মিটার

মাটির আর্দ্রতা ও তাপমাত্রা মাপার কাজে ব্যবহৃত হয়। ৮০০ থেকে ১ হাজার ৫০০ টাকায় পাওয়া যাবে নবাবপুর ও হাটখোলা সায়েন্টিফিক মার্কেটে। এ ছাড়া পুরান ঢাকার সিদ্দিকবাজার বীজ মার্কেটেও পাওয়া যাবে এই পরিমাপক।

Leave a Reply


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: