,


শলৈকুপায় গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার নহিতরে পরবিাররে দাবী হত্যা

শলৈকুপায় গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার নহিতরে পরবিাররে দাবী হত্যা

ঝনিাইদহ প্রতনিধিঃ গলাই ওড়না পচেয়িে ঝনিাইদহরে শলৈকুপায় তামান্না খাতুন (২৫) নামরে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করছে।ে তবে এটা আত্মহত্যা নয়, পরকিল্পতি হত্যা বলে নহিতরে স্বজনরা দাবী করছে।েঘটনাটি ঘটছেে রববিার গভীর রাতে উপজলোর ত্রবিনেী ইউনয়িনরে আনন্দনগর গ্রাম।ে জানা যায়, আনন্দনগর গ্রামরে মকছদে শখেরে ছলেে বকুল শখেরে সাথে গত ৭ বছর র্পূবে ঝনিাইদহ সদর উপজলোর সোনাদহ গ্রামরে নাসরি শখেরে ময়েে তামান্না খাতুনরে বয়িে হয়। সংসার জীবনে তাদরে তানভীর নামে ৫ বছর বয়সী একটি ছলেে সন্তান রয়ছে।ে ছলেকেে নয়িে তাদরে সংসার ভালই চলছলিো। কন্তিু হঠাৎ গত ৬ মাস র্পূবে বকুল শখে প্রথম স্ত্রী তামান্নার বনিা অনুমততিে আবারো বয়িে কর।ে ছোট বউকে নয়িে বকুল ঢাকাতে বসবাস শুরু কর।ে সইে থকেইে তাদরে সংসার জীবনে কলহরে সৃষ্টি হতে থাক।ে এরই এক র্পযায়ে বকুল ঢাকা থকেে বাড়ীতে আসলে রববিার রাতে বড় স্ত্রী তামান্নার সাথে বাক বতিন্ডার সৃষ্টি হয়। এর কছিুক্ষণ বাদে গলাই ওড়না পচোনো অবস্থায় ঘররে মধ্যে ঝুলতে দখেে তামান্নাকে উদ্ধার করে শলৈকুপা হাসপাতালে নয়িে যায় পরবিার ও আশপাশ এলাকার লোকজন। হাসপাতালরে র্কতব্যরত চকিৎিসক তাকে মৃত বলে ঘোষনা করনে। এদকিে নহিত তামান্নার বাবা দশেরে বাইরে থাকায় সোনাদহ গ্রামরে চাচাতো ভাই জামাল শখে, চাচী সোনালী খাতুন ও মুন্নি খাতুন আনন্দনগর গ্রামে নহিত তামান্নার মৃতদহে দখেতে আস।ে এসময় তারা অভযিোগ করে বলনে, তামান্না খুবই নরম স্বভাবরে ময়েে ছলিো। তার স্বামী বকুল স্ত্রী সস্তান রখেে বনিা অনুমততিে দ্বতিীয় বয়িে করে সংসারে অশান্তি বাধায়। বকুল ও তার বাড়ীর লোকজন মলিে তামান্নাকে পরকিল্পতিভাবে হত্যা করছে।ে এখন ঘটনা ধামাচাপা দতিে তারা আত্মহত্যা বলে চালানোর চষ্টো করছ।ে রামচন্দ্রপুর পুলশি ফাঁড়রি ইনর্চাজ এসআই রবউিল ইসলাম জানান, নহিত গৃহবধূ তামান্নার মৃতদহে ময়না তদন্তরে জন্য ঝনিাইদহ র্মগে পাঠানো হয়ছে।ে ময়না তদন্ত রপর্িোট হাতে পলেে জানা যাবে এটা হত্যা, নাকি আত্মহত্যা?

Leave a Reply


এই বিভাগের আরো

সর্বশেষ

%d bloggers like this: