,


সাংবাদিকতার মাধ্যমে জনগণের সেবা করে যাচ্ছি

সাংবাদিকতার মাধ্যমে জনগণের সেবা করে যাচ্ছি

মোহাম্মদ অংকন,ঢাকাঃ নাটোর জেলা থেকে প্রকাশিত প্রিন্ট মিডিয়া এবং অনলাইন মিডিয়ার প্রকাশক ও সম্পাদকদের সংগঠন নাটোর জেলা এডিটর’স ক্লাব’র যুগ্ম আহবায়ক নির্বাচিত হয়েছেন সিংড়া প্রেসক্লাবের সভাপতি ও চয়েন বার্তার সম্পাদক মোঃ এমরান আলী রানা। নির্ভীক কলম সৈনিক মোঃ এমরান আলী রানা নাটোর জেলার চলনবিল অঞ্চলের সিংড়া উপজেলার বালুয়া বাসুয়া গ্রামে ৩রা ফেব্রুয়ারি ১৯৭৮ সালে সম্ভান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। শৈশবের দুরন্ত চঞ্চল ছেলেটি লেখাপড়া, ছাত্র রাজনীতির পাঠ চুকিয়ে এখন সাংবাদিকতার জগতে বটবৃক্ষস্বরুপ। পাশাপাশি নিজের ব্যবসা ও লেখালেখি করেন। ছাত্রজীবনে ১৯৯৭ সালে তিনি একটি বৃহৎ ছাত্র সংগঠনের উপজেলা পর্যায়ে কাউন্সিলরদের ভোটে নির্বাচিত ছাত্রনেতা ছিলেন। পরবর্তীতে সে পথে হাঁটা হয়নি।

তাঁর বেশ কয়েকটি যৌথ কাব্যগ্রন্থ বের হয়েছে। তিনি সাংবাদিকতায় অবদানের জন্য ভারতের পশ্চিমবঙ্গ থেকে ‘আর্ন্তজাতিক সাহিত্য সম্মেলন ও সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠান’-এ ‘মহাত্মা গান্ধি স্বর্ণপদক-২০১৮’, ‘সাপ্তাহিক চলনবিলের আলো গুণীজন পদক-১১’ এবং ‘উত্তর বাংলা সংস্কৃতি পরিষদ’ কর্তৃক শিল্প সাহিত্য ও সামাজিক অঙ্গনে উল্লেখযোগ্য সাংগাঠনিক কর্মকান্ডের জন্য ‘উত্তর বাংলা সন্মাননা ২০১১’, চলনবিল সাহিত্য কুটির কর্তৃক ‘সাংবাদিকতায় প্রকাশনা উৎসব ও গুণীজন পদক-২০১২’, সাহিত্য ভাবনার ছোট কাগজ অপরাজিতার ‘কবিতা উৎসব-২০১৩ সংগঠক সন্মাননা’, মহীয়সী সাহিত্য ও পাঠচক্র ‘কবিতা উৎসব-২০১৩ কাব্য সন্মাননা’, সাপ্তাহিক নাটোর বার্তা ‘প্রকাশনা উৎসব ও গুণীজন সংবর্ধনা পুরস্কার ২০১৩’ পেয়েছেন। ১৯৯৯ সালে তিনি সম্পাদনা করেন ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের স্মৃতি চারণে চয়েন বার্তা নামক পত্রিকা। মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান হিসেবে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ এবং ইতিহাস সংরক্ষণে গড়ে তোলেন ‘শহীদ চয়েন বহুমুখী প্রতিষ্ঠান’। তিনি ঐ প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান। এই প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ, মননশীল সাহিত্যচর্চা এবং আত্ন-নির্ভরশীলতা সৃষ্টির প্রচেষ্টার মাধ্যমে অপসংস্কৃতি যৌতুক, মাদক, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার প্রত্যাশায় সাংবাদিক, লেখক, কবি, সাহিত্যিকদের নিয়ে গড়ে তোলেন সামাজিক আন্দোলন।

নাটোর জেলার বৃহত্তর উপজেলা সিংড়ায় লেখক সাংবাদিক সৃষ্টির লক্ষ্য নিয়ে প্রতিষ্ঠা করেন ‘সিংড়া রাইটার এন্ড রিপোটার্স ক্লাব’ এবং ‘সিংড়া লেখক চক্র’। ২০০৩ সালের ২০ জানুয়ারী নিজ প্রচেষ্টায় সিংড়া উপজেলায় সাংবাদিকতায় বিল্পব ঘটিয়ে নবরুপে তরুণ সাংবাদিকদের নিয়ে ‘সিংড়া প্রেসক্লাব’ প্রতিষ্ঠা করার উদ্দ্যোগ গ্রহণ করেন এবং প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি প্রতিষ্ঠাকাল থেকে প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক থেকে বর্তমানে সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সিংড়া অনলাইন প্রেসক্লাব, সিংড়া টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরাম, তৃণমুল বন্ধু ফাউন্ডেশন ও বাংলাদেশ সাংবাদিক ও লেখক ফোরাম কেন্দ্রিয় কমিটির চেয়ারম্যান, সিংড়া সচেতন নাগরিক সমাজ’র সদস্য সচিব, সিংড়া ওয়ার্কশপ শিল্প বণিক সমিতি প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক ও বর্তমান সভাপতি ও ব্যবসায়ী কল্যাণ ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির সিংড়া উপজেলা শাখার সহ-সভাপতি হিসেবে কাজ করছেন। এছাড়াও তিনি প্রতিষ্ঠা করেছেন সিংড়া উপজেলা রিক্সা-ভ্যান মালিক সমিতি, চলনবিল উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদ, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন ও নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা)’র সিংড়া উপজেলা শাখার সাবেক সভাপতি। তিনি তার পিতা মৃত আমজাদ হোসেন মোল্লা কর্তৃক সিংড়া বাজারে প্রতিষ্ঠিত মেসার্স রানা ট্রেডার্স এন্ড ওয়ার্কশপের সত্ত্বাধিকারী এবং চেয়ারম্যান, রানা প্রকাশনী ও গ্রন্থাগার।
তিনি মোহনা টেলিভিশনের সিংড়া উপজেলা প্রতিনিধি, দৈনিক কালের কন্ঠ (জাতীয়), সোনার দেশ (রাজশাহী), এর সিংড়া প্রতিনিধি, নাটোর থেকে প্রকাশিত দৈনিক উত্তরবঙ্গ বার্তা ও সাপ্তাহিক সময়-অসময় পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার, সাপ্তাহিক নাটোর বার্তার ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি। জাতীয় ভাবে বিভিন্ন সাংবাদিক সংগঠনের সাথে সংপৃক্ততা থেকে সাংবাদিকের নির্যাতনের প্রতিবাদ ও অধিকার আদায়ের সংগ্রামে পাশে রয়েছেন। এছাড়াও তিনি একজন গণমাধ্যম ও সমাজ কর্মী হিসাবে সিংড়ায় মানবাধিকার প্রতিষ্ঠা এবং বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জড়িত রয়েছেন।

সম্প্রতি মোঃ এমরান আলী রানাকে নাটোর জেলা এডিটর’স ক্লাবের যুগ্ম আহবায়ক মনোনীত করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘আমি সাংবাদিকতার মাধ্যমে জনগণের সেবা করে যাচ্ছি। ভবিষ্যতেও এ ধরা বজায় রাখব। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন।’ সিংড়া প্রেসক্লাব, বাংলাদেশ সাংবাদিক ও লেখক ফোরাম, মানিক দিঘী গণ-গ্রন্থাগার, চলনবিল শেখ সোহাব গণ-গ্রন্থাগারসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনগুলো নাটোর জেলা এডিটর’স ক্লাবকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। এছাড়া মোঃ এমরান আলী রানাকে স্থানীয় ব্যক্তিবর্গরা অভিনন্দন জানিয়েছেন। এক অভিনন্দন বার্তায় তরুণ কলামিস্ট ও শিশুসাহিত্যিক মোহাম্মদ অংকন লিখেন, ‘সাংবাদিক এমরান ভাই সিংড়ার সাংবাদিকতার অগ্রপথিক। তার হাত ধরে সিংড়ার সাংবাদিকতা শুরু। সিংড়ায় তার বিকল্প কেউ নেই। তিনি নাটোর জেলা এডিটর’স ক্লাবের যুগ্ম আহবায়ক নির্বাচিত হওয়া আমার পক্ষ থেকে প্রাণঢালা অভিনন্দন জ্ঞাপন করছি।’

Leave a Reply


এই বিভাগের আরো

সর্বশেষ

%d bloggers like this: