,


দাম বেড়েছে অক্ষয় কুমারের
দাম বেড়েছে অক্ষয় কুমারের

দাম বেড়েছে অক্ষয় কুমারের

ডেস্ক রিপোর্টারঃ রাজিব হরি ওম ভাটিয়া। চিনলেন না তো? এটাই তাঁর আসল নাম। তবে সবাই তাঁকে চেনে বলিউডের ‘ঢিশুম ঢিশুম’ নায়ক অক্ষয় কুমার হিসেবে। ১৯৬৭ সালের ৯ সেপ্টেম্বর পাঞ্জাবের অমৃতসরে জন্ম নেন তিনি। তায়কোয়ান্দোতে ব্ল্যাক বেল্ট পাওয়ার পর তিনি মার্শাল আর্ট শেখার জন্য উড়াল দেন ব্যাংকক। উদ্দেশ্য, সেখানকার বিশেষ ধরনের আত্মরক্ষার কৌশল ‘মুই থাই’ শেখা। তারপর টাকার জন্য অনেক জায়গায় রেস্টুরেন্টের ওয়েটার হিসেবে কাজ করেন। একই কাজ করেছেন বাংলাদেশের ঢাকায়ও।

ভারতের মুম্বাইয়ে ফিরে এসে তিনি নিজেই মার্শাল আর্ট শেখানোর একটা স্কুল দেন। সেই স্কুলেই তাঁর এক ছাত্র ছিলো আলোকচিত্রী। সেই ছাত্র তাঁকে মডেলিংয়ের পরামর্শ দেন। সেজন্য ছবিও তুলে দেন। সেই ছবি দিয়েই রাজিব হরি ওম ভাটিয়ার অক্ষয় কুমার হবার যাত্রা শুরু। আর আজ তিনি বলিউডের প্রতিষ্ঠিত অভিনেতা। শুধু প্রতিষ্ঠিত বললে কম বলা হবে, তিনি বলিউডের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাওয়া অভিনেতাদের একজন। ফোর্বসের সর্বশেষ জরিপে, অক্ষয় কুমার পৃথিবীর ধনী তারকাদের মধ্যে রয়েছেন ৩৩ তম স্থানে। বছরে তিনি প্রায় সাড়ে ছয় শত কোটি টাকা আয় করেন। সম্প্রতি তিনি তাঁর পারিশ্রমিক বাড়িয়েছেন আরও এক দফায়।

তাঁর নাকি ‘নয়-নয়’ করে বাড়ে পারিশ্রমিক। প্রতিটি ছবির জন্য ২৭ কোটি, ৩৬ কোটি, ৪৫ কোটি- এভাবে নয়ের গুণিতক হিসেবে বাড়ছে তাঁর পারিশ্রমিক। আর সেই ধারা মেনে এবার তিনি প্রতিটি ছবির জন্য নেবেন ৫৪ কোটি! শুধু তাই নয়, ছবির লাভ্যাংশে প্রযোজকের সঙ্গেও ভাগ বসাবেন তিনি। তাঁর সর্বশেষ হাউজফুল থ্রি (২০১৬), রুস্তম (২০১৬), জলি এলএলবি টু (২০১৭) টয়লেট এক প্রেম কথা (২০১৭), প্যাডম্যান (২০১৮), টু পয়েন্ট জিরো (২০১৮), কেসারি (২০১৮)- প্রতিটি ছবিই ব্লকবাস্টার হিট।

বর্তমানে তাঁর পাঁচটি ছবির কাজ চলছে। মিশন মঙ্গল, হাউজফুল ফোর, গুড নিউজ, সূর্যবংশী ও লক্ষ্মী বম্ব। ২০১২ সালে তিনি যখন রাউডি রাথোর ছবি করেন, তখন তাঁর পারিশ্রমিক ছিলো ২৭ কোটি। আজকের তুলনায় সেটাকে মাত্রই বলতে হয়। প্রভু দেবা পরিচালিত সেই ছবি দিয়ে প্রযোজক সঞ্জয় লীলা বানসালি ব্যাপক অর্থ ঘরে তুলেছিলেন।

ডেকান ক্রনিকলে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন অনুসারে, অক্ষয়ের এক মুখপাত্র বলেছেন, ‘অক্ষয় নয় সংখ্যাটা খুব ভালোবাসে। তাঁর বিশ্বাস, এই সংখ্যাটা তাঁর জন্য খুব লাকি। তাই এবার তিনি তাঁর দর আরও এক দফা বাড়িয়ে ৫৪ কোটিতে নিয়ে গেছেন। আর প্রযোজকেরাও তাঁকে সেই অর্থটাই দিচ্ছেন। গত বছর যখন সঞ্জয় লীলা বানসালি পরিচালিত পদ্মাবত ছবিটি ব্যাপক ব্যবসা সফল হল, এরপর মজা করে অক্ষয় কুমার মজা করে বানসালির পরের ছবিতে তাঁকে নিতে বলেছিলেন। আর বানসালি কথা দিয়েছেন, পরের ছবিতে তিনি অক্ষয় কুমারকে নেবেন।’

তিনি আরও জানান, সঞ্জয় লীলা বানসালি পদ্মাবতের সিক্যুয়েল বানাবেন, আর সেই ছবিতে অক্ষয় কুমারকে নেবেন। আর এই ছবির জন্য নির্মাতারা অক্ষয় কুমারকে রাউডি রাথোর (২০১২) ছবিতে যা পারিশ্রমিক দিয়েছিলেম, তার ঠিক ঠিক দ্বিগুন দিতে হবে।

প্রথম হিটের মুখ দেখার জন্য পর পর ১৬ টা ফ্লপ ছবি ‘উপহার’ দিতে হয়েছিল যাঁর , সেই মানুষটার এখন সময় বদলেছে। এখন তিনি পর পর ১৬টি ব্লকবাস্টার হিট উপহার দিলেও কেউ অবাক হবে না।

Leave a Reply


এই বিভাগের আরো

%d bloggers like this: