,


কী চলছে তাঁদের ভেতর?
কী চলছে তাঁদের ভেতর?

কী চলছে তাঁদের ভেতর?

ডেস্ক রিপোর্টারঃ বলিউড তারকা দিয়া মির্জা তাঁর স্বামী সাহিল সংঘ থেকে আলাদা হয়ে গেছেন, খবরটা গতকাল বৃহস্পতিবার জানা গেছে। আর আজ শুক্রবার জানা গেল, বলিউডের আরেক তারকা দম্পতি কণিকা ধীলন ও প্রকাশ কোভালামুড়ি দুই বছর আগেই আলাদা হয়ে গেছেন।

কণিকা ধীলন পেশায় লেখক। ‘রা ওয়ান’, ‘মনমর্জিয়া’ আর চলতি ‘জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া’ ছবির কাহিনিকার তিনি। এগুলো ছাড়াও তিনি কয়েকটি উপন্যাস লিখেছেন। অন্যদিকে ‘জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া’ ছবির পরিচালক প্রকাশ কোলাভামুড়ি। এটি হিন্দি ভাষায় নির্মিত তাঁর প্রথম ছবি। তিনি মূলত তামিল ভাষার চলচ্চিত্র পরিচালক। এর আগে তিনটি ছবি পরিচালনা করেছেন, যার ভেতর ‘সাইজ জিরো’ (২০১৫) ছবির কাহিনিকার কণিকা ধীলন। তিনি একাধিক তেলেগু ছবিতে অভিনয়ও করেছেন।

ছয় বছর প্রেম করার পর ২০১৪ সালের অক্টোবরে বিয়ে করেন কণিকা ধীলন ও প্রকাশ কোভালামুড়ি। কিন্তু প্রেমের থেকে যে বিয়ের বয়স কম হবে, তা কে জানত! অনেক দিন ধরেই তাঁদের আলাদা হওয়ার গুঞ্জন ভাসছিল বলিউডের বাতাসে। ‘ই টাইমস’-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী এবার জিজ্ঞেস করা মাত্র কণিকা বলেছেন, ‘হ্যাঁ, আমরা আলাদা হয়েছি। কিন্তু “জাজমেন্টাল হ্যায় কেয়া” ছবি চলার সময় না, আরও দুই বছর আগে। তখন এই ছবির কাজ শুরুই হয়নি।’

কণিকা আরও জানান, তাঁরা পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তিতে আলাদা হয়েছেন। তবে তাঁদের বন্ধুত্ব এখনো অটুট। যেমনটা বলেছেন দিয়া মির্জা। দুই বিবাহিত জুটি সমঝোতার ভিত্তিতে আলাদা হয়েছেন। এ পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল। তবে গন্ডগোল বাধছে অন্যখানে। কিছু গণমাধ্যম রটাচ্ছে, কণিকা ধীলন আর সাহিল সংঘের ভেতর নাকি কিছু একটা চলছে। কিন্তু সব সময় দুইয়ে দুইয়ে চার হয় না। ‘যা রটে তাঁর কিছুটা বটে’, এই তত্ত্ব উড়িয়ে দিয়েছেন কণিকা।

বেজায় চটেছেন কণিকা। টুইটারে লিখেছেন, ‘হাস্যকর-জঘন্য-দায়িত্বকাণ্ডজ্ঞানহীন। কল্পকাহিনি লেখা আমার কাজ। এখন তো দেখি সাংবাদিকেরাও এসব লেখা শুরু করে দিয়েছে। ট্যাবলয়েডগুলো কি আরেকটু দায়িত্বশীল হতে পারে না? একই দিনে দুটো খবর আসার মানে এই না যে এই দুটো খবরের মধ্যে যোগ আছে। আমি জীবনে কোনো দিন দিয়া বা সাহিলকে সামনাসামনি দেখিনি। আমাদের কখনো সাক্ষাৎ হয়নি। দয়া করে এসব বন্ধ করেন। আমাদের কাজ করতে দেন।’

অন্যদিকে দিয়া মির্জার নাকি তাঁর এক সহ-অভিনয়শিল্পী মোহিত রায়নার সঙ্গে ভালো রসায়ন হয়েছে। মোহিত রায়না মূলত ছোট পর্দার অভিনয়শিল্পী। ‘উড়ি-দ্য সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’ (২০১৯) ছবির মাধ্যমে বলিউডের বড় পর্দায় অভিষেক ঘটেছে তাঁর।

Leave a Reply


এই বিভাগের আরো

সর্বশেষ

%d bloggers like this: