,


পুরুষেরা সঙ্গীর কাছে আসলে কী চায়?
পুরুষেরা সঙ্গীর কাছে আসলে কী চায়?

পুরুষেরা সঙ্গীর কাছে আসলে কী চায়?

ডেস্ক রিপোর্টারঃ দাম্পত্য সম্পর্ক সাবলীল রাখতে নারী-পুরুষ উভয়েরই দায়িত্ব রয়েছে। আর একটি স্বাস্থ্যকর সম্পর্কে উভয়েরই থাকে কিছু চাওয়া, কিছু প্রত্যাশা। ব্যক্তিভেদে এই প্রত্যাশা ভিন্ন হতে পারে। পুরুষেরা অনেকক্ষেত্রে সঙ্গীর কাছে নিজের চাওয়াগুলো খোলাখুলিভাবে প্রকাশ করতে পারেন না। আর এই অব্যক্ত কথাগুলো যদি নারী সঙ্গী বুঝে নিতে পারেন তাহলে সম্পর্কগুলো হয়ে উঠতে পারে আরো বেশি উষ্ণ।

পুরুষরা সঙ্গীর কাছ থেকে কিছু ছোট ছোট জিনিস প্রত্যাশা করে।

আত্মসম্মান: নারী-পুরুষ প্রত্যেকেই আত্মসম্মানের প্রতি ভীষণ খেয়ালি হয়। তাই পুরুষের আত্মসম্মানের দিকে খেয়াল রাখুন, কোনোভাবেই স্পর্শকাতর ইগোতে আঘাত দেওয়া যাবে না।

আবেগঘন সম্পর্ক গড়ে তুলুন: পরস্পরের মধ্যে শক্তিশালী আবেগঘন বন্ধনই পারে সম্পর্ককে মজবুত করতে। আপনার পুরুষসঙ্গীর সঙ্গে নিয়মিত কথা বলুন, তার সমস্যাগুলো জানুন। আন্তরিক যোগাযোগ বাড়ান। একে অন্যের আবেগকে মূল্য দিন এবং পারতপক্ষে কখনোই সঙ্গীর অনুভূতিতে আঘাত করবেন না।

পুরুষও নিরাপত্তা চায়: শুনতে কিছুটা চমকপ্রদ মনে হলেও এটা সত্যি যে প্রত্যেক পুরুষ তার সম্পর্কে নিরাপত্তা চায়। নারী প্রায়ই ভেবে থাকে, কেবল তারাই সম্পর্কে অনিরাপদ ও তাদেরই নিরাপত্তার প্রয়োজন। কিন্তু পুরুষও সম্পর্কে নিরাপত্তার অভাব অনুভব করে ভীষণভাবে। এ জন্যই পুরুষ একজন নারীর কাছে ভালোবাসা ও বিশ্বাসের মর্যাদা রক্ষার আহ্বান জানায়।

সমর্থনপূর্ণ শ্রদ্ধা: প্রত্যেক পুরুষ তার সঙ্গীর কাছ থেকে শ্রদ্ধা চায়। তার আবেগ, সময়, চেষ্টা এমনকি তার কাজকেও আপনার শ্রদ্ধা করা উচিত। পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধ থাকলেই একটি শক্তিশালী সম্পর্ক তৈরি হয়। অন্যদিকে, পারস্পরিক অশ্রদ্ধাকে বলা হয় সম্পর্কচ্ছেদের প্রথম ধাপ। তাই প্রতিটি নারীর উচিত তার সঙ্গীকে ও তার আবেগকে যথাসাধ্য শ্রদ্ধা করা।

সঙ্গীকে বিশেষ ভাবা: পুরুষ সঙ্গী হয়তো বা সবকিছু প্রকাশ করবে না, কিন্তু আপনি যখন তাকে গুরুত্বপূর্ণ অনুভব করাবেন, সত্যিই সে ভীষণ পছন্দ করবে। নারীর মতোই তারা আকর্ষণ উপভোগ করে। সুতরাং পুরুষকে গুরুত্বপূর্ণ অনুভব করানোর কিছু পরিকল্পনা এখনই করে ফেলতে পারেন।

Leave a Reply


এই বিভাগের আরো

সর্বশেষ

%d bloggers like this: